ট্যাগ সংরক্ষণাগার:ইসলাম

ডাইনোসর ও আদম : তুলনামূলক আলোচনা

ডাইনােসর সরিসৃপ গোত্রের প্রাগৈতিহাসিক প্রাণী। পৃথিবীতে এরা বাস করতাে মেসােজোয়িক কালে। ২৩০ মিলিয়ন বছর আগে থেকে ৬৫ মিলিয়ন বছর আগ পর্যন্ত। ডাইনােসর নামটা তৈরি হয়েছে দুটি গ্রীক শব্দকে যুক্ত করে। মানে বিকট বা ভয়ঙ্কর গিরগিটি। ৬৬ মিলিয়ন বছর আগে হুট করেই সব ডাইনােসর এক সঙ্গে মারা যায়। এভাবে চিরতরে হারিয়ে যাবার আগে ১৬০ মিলিয়ন বছরের বেশি সময় ধরে তারা পৃথিবীর প্রায় সব এলাকাতেই দাপটের সঙ্গে টিকে ছিলাে। তখন সমুদ্রগুলােতে ঘুরে …

আরও পড়ুন

গলাকাটুনী

  আমার পাঁচ বছর বয়সী পুত্র চাঁদ আজ আমাকে জোর গলায় বলল, “আমি গলাকাটুনীকে ভয় পাই না, বাবা!” “বাহ, দারুণ তো, সাবাস! তুমি নিশ্চয়ই ছেলেধরাকে গলাকাটুনী বলছ?” “সবাই তো তাই বলে, রাফিও বলে, রাফির মামণিও বলে। আরিয়ানও বলে, আরিয়ানের মামণিও বলে! আর ওরা তো গলাই কাটে! তুমি কিচ্ছু বুঝ না, বাবা!” “বাহ, নামটা পছন্দ হয়েছে!” “আচ্ছা বাবা, শেখ হাসিনাও কি গলাকাটুনী?” “হায়! কী বলছ তুমি! শেখ হাসিনা তোমাদের খুব ভালবাসেন, …

আরও পড়ুন

বিচ্ছিন্ন ও অবিচ্ছিন্ন ঘটনার নিরবচ্ছিন্নতা

নবি মুহম্মদ মোট সাতাশটি যুদ্ধে অংশ নিয়েছিলেন। বহু আত্মীয় স্বজন এবং প্রতিবেশী নিহত হন সেসব যুদ্ধে। যুদ্ধগুলো তিনি শান্তির ধর্ম ইসলাম প্রতিষ্ঠার জন্য করেছিলেন। কোরআনের সুরা কাউসার ৩/৩,লাহাব ৫,হুদ ১৭, আল ইমরান ৮৫, আত্ তাহরীম ১২/৭ও৯, আলহাছর ২৪, আল মুমতাহিনা ১,৮,১৩, আছ ছফা ১৪, মায়েদা ৩৩ এবং সমগ্র কোরআনের এরূপ ৫২৭ টি আয়াতে ইহুদি খ্রিস্টান ও অবিশ্বাসীদের প্রতি ঘৃণা প্রকাশ ও গালাগাল দেয়া হয়েছে। আর ১০৯টি আয়াতে তাদের সঙ্গে যুদ্ধ …

আরও পড়ুন

মুফাসসিল ইসলামের পোস্টমর্টেম-৩

চতুর্থত আরেকটি বিষয় হতে পারে ষড়যন্ত্র। মৌচাকে ঢিল দিয়ে পালিয়ে গেলাম, এখন মৌমাছি যাকে পারে খুব কামড়াক। হয়তোবা ওদেরই একটা এজেন্ডা বাস্তবায়নের জন্য এসেছিল, যেমন কমিউনিস্ট পার্টির সদস্য হিসেবে প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হয়ে মিখাইল গরভাচেভ গ্লাসনস্ত ও পেরেস্ত্রইকার মাধ্যমে পুরো সমাজতান্ত্রিক সমাজ ব্যবস্থাকেই ধ্বংস করে ফেলেছিল। মুফাসসিল ইসলামও হয়ত এসেছিলেন, এক সময় সাথে করে এক গাদা নাস্তিকদের সাথে নিয়ে নিজ মতবাদের ভিতর ঢুকিয়ে দিবেন। যদিও মুফাসসিল ইসলামের দাবি তার ভিডিও দেখে …

আরও পড়ুন

মুফাসসিল ইসলামের পোস্টমর্টেম-২

সেই মুফাসসিল কেন যে গড্ডালিকার প্রবাহ ছেড়ে নাস্তিকতার মত অজনপ্রিয় জগতে ঢুকলেন তা এক চরম বিস্ময়। অবশ্য নাস্তিকতার জগত না বলে বিশেষ একটি ধর্ম বিদ্বেষী বলাই অধিকতর যুক্তিযুক্ত। কারণ তার কোন ভিডিওতেই আমি দর্শন শাস্ত্রের আলোকে ঈশ্বরের অস্তিত্বহীনতার পক্ষে যুক্তি বা বৈজ্ঞানিক তত্ত্ব আলোচনা করতে দেখিনি। অথচ এই বিষয়টিকে বিজ্ঞান ও দর্শনের আলোকে প্রমাণ করা গেলে অন্য কোন কিছু নিয়েই এত বকর বকর করা লাগেনা। এর উপরে ভিত্তি করে দাঁড়ানো …

আরও পড়ুন

রোহিঙ্গা প্রসঙ্গে

#রোহিঙ্গা! মনে আছে, বন্ধু? রোহিঙ্গারা নাকি চরম খারাপ, কুকুরেরও অধম? ওদের জন্মেই কি দোষ আছে? শালারা আবার মুসলিমও! এটাও তো বড় অপরাধ, তাই না? ছিনতাই ধর্ষণ চুরি ডাকাতিতে এরা বিশ্বসেরা, এই তো? এদের বাচ্চারাও কি সব জানোয়ারের বাচ্চা? রোহিঙ্গা নারীরা বুঝি ডাইনীর চেয়েও খারাপ! এইসব নরপশু রোহিঙ্গাদের মরাই উচিত, তাই না ? মরেছে এরা সমুদ্রে ডুবে, মরেছে এরা বুলেটের আঘাতে, ছুরিকাঘাতে, মরেছে দুর্গম পাহাড়ে না খেয়ে খেয়ে, মরেছে এরা শীতে …

আরও পড়ুন

ধর্মকথা

খুন ধর্ষণ লুটপাট নাস্তিকরা করলেও করতে পারে কারণ তারা কোনো ঈশ্বরের কাছে কৈফিয়তে বিশ্বাসী নয়। তারা নির্ভার এবং একক। তারা পরকালের শাস্তিকে হাস্যকর মনে করে অর্থাৎ বিশ্বাসই করে না। ফলে তাদের পক্ষেই হয়তো যা ইচ্ছা তাই করা সম্ভব। আর একজন আস্তিক বুঝে সবাই এবং সবকিছুই এক ঈশ্বরের , সে কাউকে আঘাত করতে পারে না। সে জানে এবং বুঝে সৃষ্টির উপর আঘাত মানে পরোক্ষভাবে সৃষ্টিকর্তার উপরেই আঘাত। অথচ আশ্চর্য, ঐসব তথাকথিত …

আরও পড়ুন

ধর্ম মানেই বিভাজন, ধর্ম মানেই ঘৃণা, ধর্ম মানেই অন্ধকারের পর্দা

#বোরকাওয়ালী বহুদিন আগে। বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় দ্বীপ ভোলায় তখন আমার অবস্থান। তখন আমি একটা অফিসের বস। একদিন কাজ করছিলাম নিজের টেবিলে। সহকর্মীরা তখন সব বাইরে। তখন দুপুর। আপাদমস্তক বোরকায় ঢাকা এক মেয়ে ঢুকল আমার অফিসকক্ষে। চোখ দুটোই শুধু দেখা যাচ্ছে। ভাগ্যিস, মানুষের চোখ ছিল! মেয়েটির সঙ্গে ঠিক কী কথা, কী ধরনের কথা হয়েছিল তা এখনও আমার স্মৃতিতে উজ্জ্বল। মেয়েটিকে বসতে বললাম। বসল। আগ্রহ নিয়ে। প্রশ্ন নিয়ে তাকালাম। বলল, “মোশাররফ ভাই …

আরও পড়ুন

ভাবনার এরোপ্লেন

বাঙালি একাত্তরে নিজেদের একটা ভুখন্ড, স্বাধিকার এবং অর্থনৈতিক মুক্তির আশায় লড়াই শুরু করে। আর তখনই সাংস্কৃতিক মুক্তির প্রশ্নে লড়তে লড়তে অল্পসংখ্যক সচেতন বাঙালি আবিষ্কার করে এসব অর্জন করতে হলে তাকে ইসলামের বিরুদ্ধেও যুদ্ধ করতে হবে। কারণ ইসলাম মিশে আছে পাকিস্তানের আত্মায়। অধিকাংশ বাঙালিই কাজটা সচেতনভভাবে করেনি, এটা সত্য। তবে যুদ্ধটা করেছিল মরণপন।পুরো যুদ্ধটাতেই পাকিস্তান দাবি করেছিল, প্রচার করেছিল এবং বিশ্বাস করেছিল ইসলামের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র হিসেবে। তাই তারা বেছে বেছে হত্যা করছিল …

আরও পড়ুন

ইসলামপূর্ব আরবে নারীর অবস্থা

ইসলামে বলা হয় ইসলামপূর্ব আরবে নারীর অবস্থা শোচনীয় ছিলো। ইসলাম উদ্ধার করে তাদের। সব ধর্ম ব্যবস্থাই তার পূর্বের ধর্মের বিরুদ্ধে অপপ্রচার করে। ঐতিহাসিক ভাবে সাধারণত সেটি সত্যি হয় না। আরব নারীদের ইতিহাসে জানা যায়- ইসলামপূর্ব আরবে অনেক বেশি স্বাধীনতা ও অধিকার ছিলো নারীর। তারা অবরোধে থাকতো না, তারা সব ধরণের সামাজিক কর্মকাণ্ডে অংশ নিতো। তাদের প্রাধান্যও ছিলো সমাজে। ইসলামপূর্ব আরবে কিংবা মোহাম্মদ যখন সবে তার ধর্ম প্রচার শুরু করছেন তখনও …

আরও পড়ুন

ভাবনার এরোপ্লেন- ১

অন্যান্য ধর্মের প্রভাবে বিশেষ করে বর্বরতম ধর্ম ইসলামের শ্রেষ্ঠত্বের দাবিতে অর্ধমৃত ভাইরাস হিন্দুরাও এক ভয়াবহ মৌলবাদি দানবে রূপান্তরিত হয়ে যাচ্ছে। মৌলবাদের জবাবে মৌলবাদ, ধর্মান্ধতার বদলে ধর্মান্ধতা, খেলাফতের জবাবে রামরাজ্য আমাদেরকে আরো এক কুৎসিত পরিস্থিতির দিকে ঠেলে দিচ্ছে। খুব বেশি দূরে নয় শীঘ্রই হয়তো হিন্দু ধর্মান্ধদের দৌরাত্বে কাপঁবে বিশ্ব মানবতা ; ইসলামের মতোই। হয়তো আরো জমে উঠবে এই দুই কুকুরের লড়াই; কোন এক কাল্পনিক হাড়ের দখলের চেষ্টায়। আশ্চর্য হলেও সত্য, আমাদের …

আরও পড়ুন

হ্যাঁ হ্যাঁ এইখানে মানুষ আছে

ডিসকভারি চ্যানেল দেখেন অথচ বেয়ার গ্রিল কে চেনেন না, এমন হবার কথা না। বেয়ার গ্রিল এর প্রোগ্রাম দেখতে আমার খুব ভালো লাগে। বাংলায় ডাবিং করেছেন যিনি, তার কণ্ঠ বেয়ার গ্রিল এর গলায় এতই মানিয়েছে যে মনে হয় বেয়ার গ্রিল বাংলায় কথা বলেন, আর এই জন্যই তাকে আরো আপন মনে হয়।তো বেয়ার গ্রিল বন জঙ্গল ছাড়িয়ে হেঁটে হেঁটে যাচ্ছে, জঙ্গল থেকে বের হতে হবে তাকে। অনেক হিংস্র পশু আছে জঙ্গলে যা …

আরও পড়ুন

ধর্ম নারী মুক্তির অন্তরায়

বাংলাদেশে বহুল প্রচলিত ধর্মের সংখ্য চারটি। ইসলাম, হিন্দু, বৌদ্ধ, খ্রিষ্টান। ধর্ম এমন এক ব্যাবস্থা যা মানুষের চলমান জীবনে আইনের মতো শাসন করে থাকে, কিন্তু তা বরাবরই আধ্যাত্মিক। ধর্ম শুধুই পরকাল নির্ভর, বলতে গেলে পরকালের স্বর্গ – নরকের ভয় দেখিয়ে মানুষকে শাসন করে চলেছে বর্তমান ধর্মীয় গুরুরা। কেউ আমার সামনে কখনো ধর্ম কথাটি উচ্চারণ করলেই আমার ছোটবেলার কথা মনে পড়ে যায়। যখন আমি তৃতীয় শ্রেণীতে পড়ি তখন বেশ দুষ্টু ছিলাম, বাড়াবাড়ি …

আরও পড়ুন

রোহিঙ্গা হত্যা ও নির্যাতন, আপনার ভাবনা কি?

মায়ানমারের বেশিরভাগ বৌদ্ধরা বাংলাদেশের তথাকথিত কিছু মুসলিম ধর্মীয় উগ্রপন্থীদের মতই । বাংলাদেশের কিছু কিছু মুসলিম ধর্মীয় উগ্রপন্থীরা যেমন যেকোন ইস্যুকে ধর্মীয় দৃষ্টিকোণে দেখে ঠিক তেমনি মায়ানমারের বেশিরভাগ বৌদ্ধরাও ধর্ম ছাড়া কিছুই বুঝে না। এক কথায় যদি বলি উভয়ই ধর্মান্ধ। মায়ানমারে রোহিঙ্গা নির্যাতন এবং তাদের নির্বিচারে হত্যা করা চলছে অনেক আগে থেকেই, যার প্রভাব আমাদের বাংলাদেশে পড়ছে। কক্সবাজার, টেকনাফ এলাকা এখন রোহিঙ্গা অধ্যুষিত এবং এইসব এলাকা থেকেই এখন বাংলাদেশের মাদক ব্যবসা …

আরও পড়ুন
error: এই ব্লগের লেখা কপি করা যাবে না