বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি

ভারতীয় পুরাণে কাল

ক্ষুদ্রতম, অবিভাজ্য এবং দেহরূপে যার গঠন হয় না তাই পরমাণু। পরমাণু অদৃশ্য অস্তিত্ব। প্রলয়ের পরেও তা বিদ্যমান থাকে। পরমাণু সমন্বিত শরীরের গতিই কালের গণনা। পুরাণ অনুযায়ী পৃথিবীতে কালের প্রামাণিক গতি সূর্যেরই গতি। একটি পরমাণুকে অতিক্রম করতে সূর্যের যেটুকু সময় লাগে তাই হলো পারমাণবিক কাল। স্থূল অথবা সুক্ষ্ম যাই বলা হোক না কেন, সেই কালকে গণনার আছে এক বৈজ্ঞানিক, দার্শনিক এবং আধ্যাত্মিক ব্যবচ্ছেদ। যা ধারাবাহিক, যা …

বিস্তারিত পড়ুন

অণ্ডকোষ লিঙ্গ এবং জ্ঞানচর্চা

মোহাম্মদ আমিনঃ অর্কিড একটি ফুল। এটি সৌন্দর্য, আনন্দ, পরিচর্যা, নান্দনিক রসবোধ এবং সাহিত্য-সংস্কৃতির প্রতীক হিসেবে বিবেচিত। অনেকের কাছে নামটি নিজেই একটি মাধুর্য। গ্রিক orchis থেকে অর্কিড শব্দের উদ্ভব। যার অর্থ অণ্ডকোষ (লিঙ্গমূল)। ১৮৪৪ খ্রিষ্টাব্দের শেষ দিকে অণ্ডকোষ বা অর্কিড, ফুলের মর্যাদায় অধিষ্ঠিত হয়। গ্রিক ভাষার অর্কিড, মধ্যযুগে ইংরেজি ভাষায় বলকওয়ার্ট নামে পরিচিত ছিল। ইংরেজি bullocks থেকে শব্দটি এসেছে। এর অর্থ অণ্ডকোষ বা লিঙ্গমূল। আধুনিক ইংরেজি …

বিস্তারিত পড়ুন

কোথা থেকে এলো এই পৃথিবী, কি করে হলো প্রাণের উৎপত্তি ?

পৃথিবীর জন্ম কীভাবে হলো তা আমরা কয়জন জানি? এটা আমাদের সবারই জানা যে পৃথিবীটা বেজায় প্রাচীন। আমাদের বয়স তার তুলনায় কিছুই না। কিন্তু কোথা থেকে এলো এই পৃথিবী ? কি করে হলো প্রাণের উৎপত্তি ? একটু আধটু ধারণা থাকলেও একেবারে পরিষ্কার ছবিটা ভাসে না অনেকের মনেই। নিচের লেখার মাধ্যমে দেখে নিন আমাদের পৃথিবীকে, একেবারে শুরু থেকে বর্তমান মানব সভ্যতা পর্যন্ত! সৃষ্টির শুরু ঠিক কখন পৃথিবী …

বিস্তারিত পড়ুন

ক্ষুদে জিনিয়াসদের যত বিড়ম্বনা

বিখ্যাত গণিতবিদ ‘কার্ল ফ্রিডরিখ গাউস’ মাত্র সাত বছর বয়সেই ক্লাসে গণিতের শিক্ষককে তাক লাগিয়ে দিয়েছিলেন নিজের প্রতিভায়।  স্যার ছাত্রদের একটা অঙ্ক কষতে দিলেন। ১+২+৩+৪+৫+…+৯৬+৯৭+৯৮+৯৯+১০০=? যোগ করো একের পর এক সংখ্যা, সমানে মনে রাখো সমষ্টি, কোনও এক ধাপে ভুল হলেই সব গোলমাল। শিক্ষক চাইলেন গণনার ভারে ছাত্রদের জর্জরিত করতে। তারা সবাই হিমশিম খেলেও তা হলনা একটি ছেলের বেলায়। কারণ ক্লাসের সব বাচ্চা অঙ্কটা যেভাবে কষতে গেল, …

বিস্তারিত পড়ুন

আইন্সটাইন, পাইলটের উড়তে জানার ক্ষমতা

রিপন ধর: একজন পাইলট হবেন, বিমান চালাবেন। তো, লিখিত পরীক্ষা দিলেন। ইন্টারভিউতে যখন জিজ্ঞেস করলেন উনি উড়তে জানেন কিনা, তখন বাপারটা কেমন লাগে? বিজ্ঞানের প্রাতিস্টানিক শিক্ষা নেওয়া পরিচিত অনেককে দেখেছি ঈশ্বর নিয়ে কথা বলার সময় যখন বিজ্ঞানের চোখে যৌক্তিক কোন বিষয় দাড় করাই তখন আমার নিজের বিজ্ঞান চর্চা নিয়ে প্রশ্ন তুলে আনা হয়। কমার্স বিভাগ থেকে এসে বিজ্ঞান বুঝবে কেমনে, এটা কি আদৌ সম্ভব কিনা …

বিস্তারিত পড়ুন

স্লো পয়জনিং ।। অনুপম আইচ

রসায়ন শাস্ত্রে ‘স্লো পয়জনিং’ নামে একটা ঘটনার উল্লেখ আছে। কিছু ভারী ধাতু আছে (যেমনঃ শীসা) যেগুলো আমাদের শরীরে কোনভাবে ঢুকে গেলে শরীরের প্রত্যঙ্গগুলো ধীরে ধীরে বিকল হতে শুরু করে।শরীরের সকল অঙ্গ-প্রত্যঙ্গ কাজ করা কমিয়ে দিতে দিতে একসময় একেবারে থেমে যায়; অর্থাৎ মৃত্যু। মনে করুন আপনি জীবনের প্রতি ভীষণ ক্ষিপ্ত, বেঁচে থাকার আর কোনো কারণ খুঁজে পাচ্ছেন না। বেছে নিতে চান আপনার সেই কাঙ্খিত পথ ‘সুইসাইড’। …

বিস্তারিত পড়ুন

মার্কসবাদ একটি বিজ্ঞান সত্ত্বেও রাজনৈতিক মতবাদ

দ্বান্দ্বিক বস্তুবাদ আসলে কি? কার্ল মার্কস ছিলেন প্রগতিশীল বামপন্থী হেগেলের ছাত্র। হেগেল জগৎ, মানুষ ও জীবনকে ব্যাখ্যা করেন দ্বান্দ্বিক চৈতন্যবাদ দিয়ে। চিন্তার যে দ্বন্দ্ব তার সমাধান করতে না পেরে দ্বারস্থ হন ঈশ্বরের বা পরমশক্তির। যা তারই ছাত্র কার্ল মার্কস মানতে পারলেন না। মার্কস ঘোষণা করলেন, চিন্তার দ্বন্দ্ব বস্তুর দ্বন্দ্ব থেকে বিচ্ছিন্ন কিছু নয়। বস্তুর মধ্যে দ্বৈত সত্তা বলে কিছু নেই। তবে চিন্তার স্বাধীন অস্তিত্ব আছে …

বিস্তারিত পড়ুন

দ্বন্দ্ববাদ, সার্বিক সংযোগ ও বিকাশের মতবাদ

একটি বিজ্ঞান হিসেবে দ্বন্দ্ববাদ : এঙ্গেলস দ্বন্দ্ববাদ বা ডায়ালেকটিকসের সংজ্ঞা নিরূপন করেছেন এভাবে, দ্বন্দ্ববাদ হচ্ছে সমস্ত গতি ও বিকাশের বিশ্বজনীন নিয়মগুলোর বিজ্ঞান । জগতের সব বস্তু ও ঘটনাপ্রবাহ সামগ্রিক রূপের এক প্রকাশ, এখানে কোনো কিছুই খণ্ডিত নয় । প্রতিটি বিষয় অবশিষ্ট জগতের সাথে যুক্ত আছে । বস্তু ও ঘটনাপ্রবাহের নিরন্তর বিকাশ হচ্ছে । এই বিকাশের মধ্যে আছে সুশৃঙ্খলা, নিয়মানুবর্তিতা ও সুসম্পর্ক । গভীর সম্পর্কের বন্ধন, …

বিস্তারিত পড়ুন

গতি

পৃথিবীতে গতিশীল বস্তু ছাড়া কিছুই নেই ।সব পদার্থই রয়েছে গতি ও পরিবর্তনের অবস্থায় । এঙ্গেলস বলেছেন গতি হলো বস্তুর অস্তিত্বের ধরণ । গতি ছাড়া কোনো কিছু থাকতে পারে না । (১) বিরাম আপেক্ষিক, গতি অনাপেক্ষিক : পৃথিবীতে বস্তুর গতি ও পরিবর্তন বিরামকে বাতিল করে দেয় না । গতিশীল পদার্থগুলোর কিছু স্থিতিশীলতা থাকে । কিন্তু গতি ও .বিরাম বিচ্ছিন্ন নয় । ধরা যাক একটি মানুষ ঘুমুচ্ছে …

বিস্তারিত পড়ুন

দ্বন্দ্বমূলক বস্তুবাদের বস্তু নিয়ে ভাবনা

বস্তুর ধারণা নিয়ে আলোচনায় এঙ্গেলসের বক্তব্য সামনে আসে । তাঁর মতে পৃথিবীর সাথে মানুষের একটি ব্যবহারিক সম্পর্ক আছে । বস্তুই প্রধান । বস্তু থেকে চেতনার উদ্ভব । জগৎকে জানা সম্ভব । এটি হচ্ছে দর্শনের বুনিয়াদী প্রশ্নের উত্তর । এই কাঠামোর মধ্যেই কেবল বস্তুর সংজ্ঞা নির্ণয় করা যায় । এঙ্গেলস বলেছিলেন, বস্তুর প্রত্যয় বা ধারণাটি হলো একটি বিমূর্তন, অর্থাৎ বাহ্যিক পৃথিবীর বস্তুসমূহ, প্রক্রিয়াসমূহ, এবং এর সম্পর্কের …

বিস্তারিত পড়ুন
error: Content is protected !!