বই

বই পড়ার অভ্যেস যেভাবে গড়ে উঠতে পারে

“পড়, পড় এবং পড়”- মাও সেতুং। রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর বলেছেন, “বই হচ্ছে অতীত আর বর্তমানের মধ্যে বেঁধে দেয়া সাঁকো” ও “ধন বল আয়ু বল, অন্যমনস্ক ব্যক্তির ছাতা বল, সংসারে যত কিছু মরণশীল পদার্থ আছে বই হচ্ছে সকলের সেরা। শ্রেষ্ঠ বইগুলো হচ্ছে শ্রেষ্ঠ বন্ধু”। দেকার্তের মতে, “ভালো বই পড়া মানে গত শতাব্দীর সেরা মানুষদের সাথে কথা বলা”। নর্মান মেলর বলেছিলেন, “আমি চাই যে বই পাঠরত অবস্থায় যেন আমার মৃত্যু হয়”। “আমাদের আত্মার …

আরও পড়ুন

ছেলেকে বড় ও মেয়েকে ছোট করে দেখা মনোভাবের পরিবর্তন

১৯৮৪ সালে পেইচিং সন্ধ্যায়, পেইচিং মিউনিসিপ্যালিতির মহিলা ফেডারেশন ও শিক্ষা ব্যুরো ইত্যাদি প্রতিষ্ঠান পেইচিং শহরের প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রীদের জন্য “আমার মা” এবং “আমার বাবা” শিরোনামের এক প্রবন্ধ রচনার প্রতিযোগিতার আয়োজন করেছিল। এতে ছাত্রছাত্রীদের কাছ থেকে ৩ লাখ ৮০ হাজার প্রবন্ধ পাওয়া গিয়েছিল। শিশু ও কিশোররা তাদের নিষ্পাপ, ছলনাবিহীন ও অকৃত্রিম শিশুসুলভ মন দিয়ে নিজের জগৎ পর্যবেক্ষণ করতে চেষ্টা করে। তারা নিজের নিজের মা ও বাবাকে গভীরভাবে পর্যবেক্ষণ করে এবং হুবহু …

আরও পড়ুন

“যে গল্পের শেষ নেই” মানে সভ্যতার ইতিহাস

যদি প্রশ্ন করা হয়, বিশ্বের সবচেয়ে বড় গল্প কোনটি? অনেকেই হাত তুলে হয়তো একবাক্যে আরব্য রজনীর সেই সহস্র এক রজনীর গল্পের কথা বলবে। আর বিদগ্ধ পড়ুয়াদের কেউ কেউ হয়তো রুশ লেখক লিও টলস্টয়ের ওয়ার অ্যান্ড পিসের কথাও বলে বসতে পারে। কিন্তু হিসাব বলছে, কারও উত্তরই সঠিক নয়। আসলে বিশ্বের সবচেয়ে গল্পের জন্মস্থান আরবেও নয়, রাশিয়াতেও নয়। বরং এর জন্ম আমাদের এই বাংলাদেশেই। আরও ভালো করে বললে, আমাদের গ্রাম-বাংলায় পানখেকো গল্পবুড়োদের …

আরও পড়ুন

হুমায়ূন হিমু

পেছনের গল্পঃ সর্বপ্রথম ২০১২ সালে একটি কবিতা লিখেছিলাম। প্রথম কবিতাটি খুব বেশি ভালো ছিলো বলে আমার মনে হয় না। তবুও কেন যেন সেই ভুলে ভরা কবিতাটি ‘মুসফিকা স্মৃতি পাঠাগার’ আয়োজিত মেঠোপথ ম্যাগাজিনে প্রকাশ পায়। তখন অবশ্য প্রকাশ পাওয়ার আনন্দ কেমন হয় সে বিষয়েও বোধগম্য ছিলো না। ২০১২ সালের পর থেকে উপন্যাস জগতে ঢুঁ মা-রা। তখন থেকেই উপন্যাস, গল্পের বইয়ের প্রতি আলাদা একটা টান, সম্পর্ক এসে মনের অলিগলির চিপায় চাপায় বীজ …

আরও পড়ুন

‘মুখোশ ও মুখশ্রী’ নামধারী বুদ্ধিজীবীদের ‘মেধা’ আর ‘মেদের’ মধ্যে তফাৎ নেই : গ্রন্থ পর্যালোচনা

সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী লিখিত ‘মুখোশ ও মুখশ্রী’ বইটি শেষ করার মধ্যদিয়ে এটুকু আরও পরিষ্কার হলো যে, জানার কোনো শেষ, শেখার কোনো শেষ নেই- জীবন মানেই জানা আর শেখা। আর সেই জানাকে কাজে লাগানোর জন্য, মানুষের জন্য কিছু করার জন্য- মানুষের মধ্যে নিজের জ্ঞানকে বিতরণ করার ক্ষুদ্র প্রয়াস এ লেখাটি। একইসাথে এ লেখার মতামত পেলে নিজেকে বিকশিত করতেও সহযোগিতা করবে বলে প্রত্যাশা করছি। পৃথিবীর শ্রেষ্ঠতম বন্ধু বই। এখন পর্যন্ত এই সত্যটিকে …

আরও পড়ুন
কামসূত্র

বিখ্যাত বই কামসূত্র ও যৌনবিজ্ঞান

কামসূত্র (সংস্কৃত: कामसूत्र বা কামসূত্রম এই শব্দ সম্পর্কে pronunciation, Kāmasūtra প্রাচীন ভারতীয় পণ্ডিত মল্লনাগ বাৎস্যায়ন রচিত সংস্কৃত সাহিত্যের একটি প্রামাণ্য মানব যৌনাচার সংক্রান্ত গ্রন্থ। গ্রন্থের একটি অংশের উপজীব্য বিষয় হল যৌনতা সংক্রান্ত ব্যবহারিক উপদেশ। গ্রন্থটি মূলত গদ্যে লিখিত; তবে অনুষ্টুপ ছন্দে রচিত অনেক পদ্যাংশ এতে সন্নিবেশিত হয়েছে। কাম শব্দের অর্থ ইন্দ্রিয়সুখ বা যৌন আনন্দ; অপরদিকে সূত্র শব্দের আক্ষরিক অর্থ সুতো বা যা একাধিক বস্তুকে সূত্রবদ্ধ রাখে। কামসূত্র শব্দটির অর্থ তাই …

আরও পড়ুন

নারীকে দাসী হিসেবে গড়ে উঠার শিক্ষা দিচ্ছে বই

অষ্টম শ্রেণীর গার্হস্থ্য অর্থনীতি বইয়ের ১১১ নম্বর পৃষ্টায় দেখেন, নারী অধিকার কিভাবে খর্বিত হয়েছে, নারীকে কিভাবে কেন্দ্রীভূত করা হয়েছে। এমন পোশাক পড়া যাবে না যেটি পুরুষের কাম জাগ্রত করে, ইভটিজিং করলে তার প্রতিবাদ করা উচিৎ নয় এতে ক্ষতি হতে পারে, নারীদের কাজ ঘরে রান্না করাসহ নারী আক্রান্ত হয়েছে পুরুষতন্ত্রের যাঁতাকলে। এই পাঠ্যবইগুলোর উপর এরকম আগ্রাসন বরাবরই দেশ শত বছর পিছনে যাওয়ার ইঙ্গিত বহন করছে। ১ম থেকে ১০ম শ্রেণীর পাঠ্যবইগুলোর মধ্যে …

আরও পড়ুন
error: এই ব্লগের লেখা কপি করা যাবে না