শুক্রবার , আগস্ট ২৩ ২০১৯

মোর্শেদ হালিম

কমিউনিস্টরা বিভ্রান্ত, উত্তরণের উপায়

রাষ্ট্র গঠনের উপাদান হল, সার্বভৌমত্ব, জনগণ, ভূমি ও প্রশাসন। চারটি উপাদান থাকলে আমরা তাকে রাষ্ট্র বলতে পারি। কমরেড লক্ষ্য করুন, সামন্তযুগে বুর্জোয়াদের রাষ্ট্র ছিল না। তারা রাজার অধীনে সামন্তসমাজে বসবাস করত। তাদের কর্তৃত্ব বলতে কিছু ছিল না। রাজা-জমিদারদের অত্যাচার শোষণ থেকে মুক্তির জন্য তারা আন্দোলন সংগ্রাম করে, শ্রেণিসংগ্রাম করে এবং …

বিস্তারিত পড়ুন

কার্ল মার্কস প্রসঙ্গ: নৈতিকতা ও মানবিকতা

মার্কসবাদী বিরোধী শিবির প্রথমই যে আঘাতটা করে তা হচ্ছে মার্ক্সবাদে নৈতিকতার কোন স্থান নেই। মার্কস-এঙ্গেলস কে শয়তান হিসেবে বর্ণনা করা হয়ে থাকে। তাদের মধ্যে একজন টাকার উড উন্নতম। হ্যা, আমাদের স্বীকার করতে আপত্তি নেই, মার্কস-এঙ্গেলস সনাতনী নীতিবিদ ছিলেন না, উনারা অপরিবর্তনীয় ধ্রুব নীতিসর্বস্ববাদী কায়দায় যে নৈতিকতা তৈরি হয় তাকে প্রত্যাখ্যান …

বিস্তারিত পড়ুন

মার্ক্সীয় সাম্যবাদ অনিবার্য

ইউরোপে ১৬৮৮ সালে ইংলিশ বিপ্লব ও ১৭৮৯ সালে ফরাসি বিপ্লবের পথধরে পুঁজিবাদ যাত্রা করে। দীর্ঘ কালপর্যায়ে ইউরোপীরা দুনিয়ার প্রায় অঞ্চল তাদের উপনিবেশিক শাসনে পরিণত করেছিল। কার্ল মার্কস কমিউনিস্ট ইশতেহার রচনা করেন ১৮৪৮ সালে। এরপূর্বেই স্বাধীনতা আন্দোলন, ব্রিটিশবিরোধী আন্দোলন, ইংরেজ হঠাও, স্বাধীনতা নয় মৃত্যু এমন স্লোগান দুনিয়া জোরে উচ্চারিত হতে থাকে। …

বিস্তারিত পড়ুন

আমি কেন অবিশ্বাসী

দর্শনের অগ্রযাত্রা থেমে নেই। সময় যতই অতিক্রম করছে ঠিক ততই আমরা নতুন নতুন জ্ঞানের সন্ধান পাচ্ছি। তাই চূড়ান্ত জ্ঞান এবং তাতে স্থিরতা বলে কিছু নেই. বিজ্ঞানও আমাদের ধ্রুব সত্য দিতে পারে না। আমরা বিজ্ঞানসম্মত ভাবে সাময়িক সিদ্ধান্ত গ্রহণ করতে পারি। আপাতভাবে স্বাভাবিক জীবন যাপনের জন্য অধিকতর যৌক্তিক ও প্রমাণিক সিদ্ধান্ত …

বিস্তারিত পড়ুন

বাঙালী ছাত্র ইউনিয়ন

১৯২৪ সালের শেষের দিকে বর্মার গোপন পার্টির ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় “সারা বর্মা বাঙালী ছাত্র ইউনিয়ন প্রতিষ্ঠা করা হয়। নামে বাঙালী ছাত্র হলেও অবাঙালী ছাত্ররাও এর সদস্য হতে পারত।অনেক বাধা-বিপত্তি অতিক্রম করে এই ছাত্র ইউনিয়ন তার শক্তি সঞ্চয় করতে পারে এবং বর্মার বাঙালী ছাত্র-ছাত্রীদের অতি প্রিয় সংগঠনে পরিণত হয়। সেই সময় বিপ্লবী …

বিস্তারিত পড়ুন

বুদ্ধিভিত্তিক আন্দোলন : আমাদের করণীয়

অপরিবর্তনীয় নৈতিক আদর্শই হল ঈশ্বরবাদের মূল ভিত্তি। কিন্তু মার্ক্সবাদ বলে সম্পূর্ণই তার উল্টা কথা। পরিবর্তনশীলতাই হবে মানুষের প্রকৃত আদর্শ। কিন্তু দুইদিন পরপর বদলে যাওয়াকে…আমরা মানুষেরা…এই সত্য মানতে পারি না। আমরা উদ্ভিতের মতো শিকড় গেড়ে বংশবিস্তারে অভ্যস্থ। আমরা নিজ শরীর না খাটিয়ে…অন্যেরটা খাটাতে পছন্দ করি। আমরা আরাম প্রিয়…পুরনোপ্রীতি নতুনভীতি সংগ্রাম বিমুখ …

বিস্তারিত পড়ুন

সাম্প্রতিক আন্দোলন নিয়ে আমার ভাবনা

সাম্প্রতিকালে ছাত্রলীগ পায়ে পারা দিয়ে ঝগড়া করতে চাইতেছে। মধুর ক্যান্টিনে আশে-পাশে অন্য কোন ছাত্রসংগঠন আছে বলে তারা মনে করে না। একক আধিপত্য প্রতিষ্ঠা করেছে। আমি এর কারণ গুলি খুঁজতে চেষ্টা করেছি মাত্র। সকল মহল থেকে ‘ছাত্র সংসদের’ দাবিটা জোরালো ভাবেই তুলা হচ্ছে। সুপ্রীম কোটও বারবার সময় বেঁধে দিচ্ছে। আওয়ামীলীগের একাংশ …

বিস্তারিত পড়ুন

মার্ক্সীয় নৈতিকতা ও করণীয়

কার্ল মার্কস হেগেলের দ্বন্দ্ব থেকে ভাব কে বিতাড়িত করেন। কাণ্টের দর্শনের গ্রহণযোগ্য ব্যাখ্যা দেন হেগেল। তাই হেগেল বাতিল হলে আলাদা করে কাণ্টকে বাতিল করতে হয় না। এবং কাণ্টের বাতিলের মধ্য দিয়ে সকল আদর্শিক ধ্যাণ ধারণা বিলুপ্ত হয়। ফয়ের বাকের বস্তুবাদ ছিল যান্ত্রিক। তিনি বস্তুর পরিমাণগত পরিবর্তন কে স্বীকার করলেও মন …

বিস্তারিত পড়ুন

আমি আদর্শবাদী নই, বাস্তবিক

আমরা ঠিক করেছি শোষণহীন সমাজের আদর্শ কমিউনিজম। এখানেই আমার আপত্তি। কারণ মার্কসের আগে সমাজবাদী ও সমাজতন্ত্রীরা আদর্শ বলতে নৈতিক, শুদ্ধ মঙ্গলকর সমাজের কথা চিন্তা করতেন। এবং তার জন্য আন্দোলন সংগ্রাম করেছেন। মার্কস এই আদর্শবাদকে খারিজ করে দিয়েছেন। বরং বাস্তব সংকট পুঁজি, মুজরি ও সেলামির বিলোপ চান। তিনি বদলে দিতে বলেন …

বিস্তারিত পড়ুন

মার্কসবাদ একটি বিজ্ঞান সত্ত্বেও রাজনৈতিক মতবাদ

দ্বান্দ্বিক বস্তুবাদ আসলে কি? কার্ল মার্কস ছিলেন প্রগতিশীল বামপন্থী হেগেলের ছাত্র। হেগেল জগৎ, মানুষ ও জীবনকে ব্যাখ্যা করেন দ্বান্দ্বিক চৈতন্যবাদ দিয়ে। চিন্তার যে দ্বন্দ্ব তার সমাধান করতে না পেরে দ্বারস্থ হন ঈশ্বরের বা পরমশক্তির। যা তারই ছাত্র কার্ল মার্কস মানতে পারলেন না। মার্কস ঘোষণা করলেন, চিন্তার দ্বন্দ্ব বস্তুর দ্বন্দ্ব থেকে …

বিস্তারিত পড়ুন
error: Content is protected !!